রাত ৯:০৩, ২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







শীতে রূপচর্চার খুঁটিনাটি

পানকৌড়ি নিউজ: সামান্য যত্ন নিলেই চেহারা পরিপাটি, সতেজ আর আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে। এই জন্য প্রয়োজন শুধু সৌন্দর্যের কিছু খুঁটিনাটি বিষয়ে সম্যক ধারণা।

শীতে ত্বকে ফুসকুড়ি, ‘ব্রন, র্যা শের ঝামেলা বেড়ে যায়। এই সমস্যা সমাধানে কমলা, টমেটোর রস খুব উপকারী। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য শসার রস বা শসা কুচি ব্যবহার করুন।’

‘ত্বকের পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে সপ্তাহে একদিন অন্তত স্ক্রাবিং করতে পারেন। এক্ষেত্রে প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি স্ক্রাবই বেশি ভালো। এক টেবিল চামচ দুধের সাথে আধা চা-চামচ লবণ মিশিয়ে মুখে লাগালে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে। ময়েশ্চারাইজার লোশন ব্যবহার করতে না চাইলে, মুখ ধোয়ার পর কয়েক ফোটা মধু পুরো মুখে লাগিয়ে দশ মিনিট রেখে ধুয়ে নিন। এতে ত্বক মসৃণ থাকবে।’

‘শীতকালে তিলের তেল গায়ে লাগাতে পারেন। তাতে হাত-পা ফাটা কমে যায়। কালোজিরা ঘিয়ের সাথে মিশিয়ে খেলে মুখের ত্বক উজ্বল ও ফর্সা হয়। উকুন হলে তুলসীপাতা বেটে রস করে নিন। রাতে ঘুমাবার আগে হালকা ম্যাসাজ করে চুলের গোড়ায় রসটা লাগিয়ে পাতলা কাপড় দিয়ে মাথা ঢেকে নিন। উকুন মরে যাবে। সকালে চুলে শ্যাম্পু করে নিন।’

‘চা বানানোর পর সেটা ফেলে না দিয়ে, তা আবার পানিতে ফুটিয়ে নিন। ২ চা-চামচ লেবুর রস এতে মিশিয়ে ছেকে নিন। প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর, সেই পানিতে চুল ধুয়ে ফেলুন। চুল ঝলমল করবে। খুশকির সমস্যা হলে ২ টেবিল চামচ দইয়ের সাথে কয়েক ফোটা মধু মিশিয়ে মাথায় লাগান। লাল পেঁয়াজ বাটা মাথায় নিয়মিত লাগালে, নতুন চুল গজায় ও পেকে যাওয়া রোধ করে।’

কাজ
স্কিনের জন্য জেন্টল এক্সফলিয়েটর হিসেবে কাজ করে।
একনে এবং এক্সেস অয়েল রিডিউস করে।
ফাইন লাইনস অ্যান্ড রিঙ্কেলস কমিয়ে আনে।
পোর মিনিমাইজ করে।
স্কিনকে আরো ফার্ম করে এবং Youthfulness ধরে রাখে।
স্কিনে জমে থাকা ডার্ট, হম্পিওরিটিস ভেতর থেকে ক্লিন করে।

ব্যবহার
মুখ খুব ভালোভাবে ক্লিন করার পর পিলিং প্যাড নিয়ে ক্লক ওয়াইজ এবং অ্যান্টি ক্লক ওয়াইজ ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে আলতো করে আপনার মুখটি মুছুন। ‘ভাল ফলাফলের জন্য ওয়াইপের নরম দিকটি ব্যবহার করে স্কিনে এই প্রক্রিয়াটি পুনরায় অ্যাপলাই করুন।’