রাত ৩:৪০, ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বেই জনগণের জীবনমান এতো উন্নত

পানকৌড়ি নিউজ: ‘দেশের প্রতিটি বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক মানের সেবা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী।’

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) ‘চট্টগ্রামে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড থেকে যাত্রী লাউঞ্জ উদ্বোধন কালে একথা বলেন।মো. মাহবুব আলী বলেন, বিমানবন্দর যে কোনো দেশের প্রবেশ দ্বার। বিমানবন্দর আন্তর্জাতিক বা অভ্যন্তরীণ যে কোনো যাত্রীর কাছে দেশের উন্নয়ন প্রথমেই প্রতিফলিত করে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বহুমাত্রিক নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রতিটি বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক মানের সেবা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।’

তিনি বলেন, ‘আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার শেখ হাসিনার আগ্রহ ও নির্দেশনায় দেশের বিমানবন্দরগুলোর উন্নয়নে বর্তমানে বেশ কিছু মেগা প্রজেক্ট চলমান রয়েছে। পাঁচ হাজার ৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের রানওয়ে শক্তিশালীকরণ ও এয়ারফিল্ড গ্রাউন্ড লাইটিং সিস্টেম স্থাপনের কাজ পুরুদমে এগিয়ে চলছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা অচিরেই হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের কাজ শুরু করবো যা নির্মাণে মোট ব্যয় হবে ২১ হাজার ৩শ’ ৯৯ কোটি টাকা। এই টার্মিনালের কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর ৩ লাখ ৩০ হাজার বর্গমিটার আয়তন, ২০টি বোর্ডিং ব্রিজ, ২১টি কনভেয়র বেল্ট ও ১৭৭টি চেক ইন কাউন্টার নিয়ে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বছরে মোট ২০ মিলিয়ন যাত্রীকে সেবা দিতে পারবে।’

বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এছাড়াও সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২ হাজার ৭শ, ৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ ও রানওয়ে শক্তিশালীকরণ প্রকল্প চলমান রয়েছে। কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে। পাঁচ হাজার একশ, ৭৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এখানে নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ ও রানওয়ের দৈর্ঘ্য নয় হাজার ফুট থেকে বাড়িয়ে ১২ হাজার ফুট করার প্রকল্প চলমান রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আমাদের মুক্তির সংগ্রামের মাধ্যমে অর্জিত মূল্যবোধ আমাদের উন্নয়নের মূলমন্ত্র। জাতির পিতার স্বপ্ন ছিল দারিদ্র্যমুক্ত, ক্ষুধামুক্ত, অজ্ঞতামুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তোলার। যে কোনো দেশপ্রেমিক বাঙালির চিরন্তন অনুপ্রেরণার উৎস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আজ বঙ্গবন্ধু কন্যার হাত ধরে জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হতে চলেছে। বাংলাদেশের অর্থনীতির আকার ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে সারা পৃথিবীতে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল।’