রাত ১২:৪২, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ







‘ভুয়া’ জন্ম তারিখে সাত সচিবের বিদায়, হাস্যরস প্রধানমন্ত্রীর

সরকারের ৭ জন সচিব একসঙ্গে অবসরে যাওয়ায় আগের আমলের শিক্ষকের দেয়া ‘জন্ম তারিখ’ নিয়ে হাস্যরস করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ‘সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে তিনি বললেন, এভাবে দলবেধে সচিব সাহেবরা অবসরে চলে যাচ্ছেন দেখে খারাপই লাগছে। এ জন্য তাদের শিক্ষকরাই দায়ী।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আগের আমলে স্কুলের রেজিস্ট্রেশনে ছাত্রদের জন্ম তারিখ শিক্ষকরাই বসিয়ে দিতেন। জন্ম তারিখ সহজে মনে রাখার জন্য তারা পহেলা জানুয়ারি জন্ম তারিখ রাখতেন। আজ এ কারণেই আমার সাতজন সচিব চলে যাচ্ছেন। অথচ এটা কারোরই প্রকৃত জন্মতারিখ নয়। আসল জন্মতারিখ হলে তারা ভিন্ন ভিন্ন সময়ে অবসরে যেতো আর আমাদের এতোগুলো সচিব একবারে বিদায় নিতো না।’

‘একজন সচিব এক সময়ে তার বসার স্থান দেখিয়ে বলেন, এই চেয়ারে আর বসা হবেনা। এটা খুব মিস করবো। তিনি সকলের কাছে অবসরকালীন জীবনের জন্য দোয়া চান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সকলের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন। প্রশাসনে তাদের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য ধন্যবাদ জানান।’

‘বৈঠক শেষে মন্ত্রিসভার একজন সদস্য সাংবাদিকদের সঙ্গে বিষয়টি শেয়ার করে হাস্যরসে মেতে ওঠেন। তিনি জানান, তাঁর দুই ভাইয়ের জন্ম তারিখের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে। শিক্ষকদের দেয়া জন্মতারিখের কারণে তাঁর আপন ভাইও অফিসিয়ালী তাঁর চেয়ে ছোট।’