রাত ৯:১১, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







বঙ্গবন্ধু স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সময় বিমানে বসে চুড়ান্ত করলেন জাতীয় সঙ্গীত

ডেস্ক রিপোর্ট: ‘আগামীকাল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। সে দিন বিমানে লন্ডন থেকে বঙ্গবন্ধুর সহযাত্রী হয়েছিলেন ভারতীয় ক‚টনীতিক শশাঙ্ক শেখর ব্যানার্জি।’

‘তিনি তার ‘বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় সঙ্গীত’ বইয়ে লিখেছেন, ‘ ১৯৭২ সালের ৯ জানুয়ারি লন্ডন হিথ্রো বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে এলেন বঙ্গবন্ধু। তাঁকে স্বাগত জানালেন ব্রিটিশপররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ বিভাগের কর্মকর্তা ইয়ান সাদারল্যান্ড ও লন্ডনে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার আপা বি পন্থ।’

আমাকে দেখে শেখ মুজিব বলেন, ব্যানার্জি, ‘এখানেও আছেন, সেসময় ইন্দিরা-মুজিব টেলিফোনে আলাপ হয়। এরপর রওয়ানা দেই বাংলাদেশের পথে। মধ্যপ্রাচ্য থেকে জ্বালানি নিয়ে বিমানটি উড়ছে। বঙ্গবন্ধু জানালা দিয়ে শ্বেতশুভ্র মেঘের দিকে অপলক তাকিয়ে রইলেন। কিছুক্ষণ পর গাইতে লাগলেন, ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি’। তার চোখে জল।’

তিনি বললেন,ব্যানার্জি, আপনিও ধরুন। ‘রিহার্সেল দিয়ে নিই। এরপর আমাকে অবাক করে দিয়ে বঙ্গবন্ধু উঠলেন, ‘এ গানটি হবে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত। কেমন হবে বলেন তো?’ শশাঙ্ক জবাব দিলেন, ইতিহাসে তাহলে প্রথমবারের মতো দুটি দেশের জাতীয় সংগীতের লেখক হবেন একই ব্যক্তি, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।’

আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘পাকিস্তানি শাসনামলের অর্ধেক সময়ই বঙ্গবন্ধুর কেটেছে কারাগারে। তার জীবনের ৪ হাজার ৬৮২ দিন কেটেছে কারাগারে।’