রাত ৮:১১, ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ







ব্রিটিশ রাজপরিবারে তোলপাড়

পানকৌড়ি নিউজ: রানির অবাধ্য হয়ে রাজকুমার হ্যারি ব্রিটিশ রাজপরিবারে যে সংকট তৈরি করেছেন, তা কার্যত দুই মহাদেশে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। মা রাজকুমারী ডায়ানা ব্রিটিশ রাজপরিবারে যে ধরনের টানাপোড়েনের জন্ম দিয়েছিলেন, তাঁর পুত্র সম্ভবত তার চেয়েও বড় সংকটের জন্ম দিয়েছেন।

‘বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন রাজপরিবার আধুনিক ব্রিটেনের বহুজাতিক সংস্কৃতির রূপান্তরের সঙ্গে কতটা তাল মেলাতে পারছে, এটি হচ্ছে সেই পরীক্ষারই একটি স্মারক। নবতিপর রানি এলিজাবেথ তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ঝামেলা মিটিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন। রানি রাজপ্রাসাদের কর্মকর্তা, যুবরাজ চার্লস, রাজকুমার উইলিয়াম ও হ্যারির ব্যক্তিগত কর্মকর্তাদের আগামী সপ্তাহের মধ্যেই একটা বোঝাপড়ায় পৌঁছানোর নির্দেশ দিয়েছেন।’

‘ব্রিটিশ সিংহাসনে উত্তরাধিকারের ধারায় হ্যারি আছেন ষষ্ঠ অবস্থানে। হ্যারি এবং তাঁর স্ত্রী মেগান, যাঁরা রাজকীয় উপাধি ডিউক এবং ডাচেস অব সাসেক্স নামে পরিচিত, বুধবার রাতে তাঁদের রাজকীয় দায়িত্ব কমিয়ে আনার ঘোষণা যতটা আকস্মিক বলে সংবাদমাধ্যমে প্রচার পেয়েছিল, বিষয়টা ততটা চকিত ছিল না। রাজপরিবার থেকে পদত্যাগের সুযোগ থাকলে তাঁরা হয়তো আগেই তা করতেন।’

‘এখন জানা যাচ্ছে, বেশ কিছুদিন ধরেই তাঁরা বিষয়টি নিয়ে যুবরাজ চার্লসের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং আলোচনার জন্য রানির সাক্ষাৎ চেয়েছিলেন। কিন্তু বড়দিনের আগে সেই সাক্ষাৎ না পেয়ে তাঁরা অবকাশ কাটাতে কানাডা চলে যান এবং সেখানে বসেই তাঁদের সিদ্ধান্ত জনসমক্ষে প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেন।’