সকাল ৬:৪৩, ৩০শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







জন্মদিনে সঞ্চয়ের টাকা দিয়ে পাড়ার কুকুরদের খাওয়ালেন স্কুলছাত্রী রুমা

পানকৌড়ি নিউজ: বছর ১৪ এর তরুণী রুমা নন্দী তাঁর প্রত্যেক বছরের জন্মদিন পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে উদযাপন করে। কিন্তু সে তাঁর ১৬তম জন্মদিন পালন করল একদম অভিনব ভাবে। তাঁর বরাবরই অবলা জীবদের প্রতি ভালবাসা ছিল প্রবল।

গরমে তেষ্টা মেটাতে জল, ‘আবার ঠান্ডায় কাঁপুনে থেকে বাঁচাতে মোটা চট, সবই খুব সহজেই জোগাড় করে ফেলে রুমা। আর সবটাই করে তাঁর পাড়ার মোড়ে ঘুরে বেড়ানো চার পায়ে হাঁটা অবলা জীবদের জন্য। বর্ষায় আবার তাঁদের নিজের উঠোনেও থাকার জায়গা করে দেয় এই ১৬ বছরের তরুণী রুমা নন্দী।’

প্রতিদিন সে স্কুলের টিফিনের টাকা অল্প অল্প করে জমাতে থাকে। ‘তাঁরই এক বন্ধুর সূত্রে জানা যায় যে সে তাঁর ১৬ বছরের জন্মদিন সেই অবলা প্রাণীদের সঙ্গে কাটাতে চায়। পরিকল্পনামাফিক সে তাঁর জন্মদিনের সকালে মায়ের হাতে তাঁর সঞ্চয়ের ৬৭০ টাকা তুলে দিয়ে রান্নার আয়োজন করতে বলে। সেই মতোন বাজার থেকে তাঁদের জন্য মুরগির মাংস চলে আসে।’

‘দুপুর হতেই ৮ থেকে ১০ জন পাড়ার কুকুরের জন্য মুরগির মাংস ভাত তৈরি হয়ে যায়। তারপর রুমা এবং তাঁর ভাই বোনেরা একসঙ্গে তাঁদের বাড়ির সামনে ডেকে থালায় করে সাজিয়ে খেতে দেয়। রুমার জন্মদিনের পার্টিতে বেশ মজা করেই লেজ নাড়িয়ে সেই অবলা প্রাণীরা পেট পুরে খেয়েছিল বলেই স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে।’

‘তবে সেই চার পায়ে হাঁটা অবলা জীব গুলো কোনও রকম উপহার না নিয়ে এলেও রুমা কে অফুরন্ত ভালবাসা আর আশীর্বাদ দিয়েছে সে নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তারপর থেকে তাঁরা রুমাকে দূর থেকে দেখলেই দৌড়ে চলে আসে। স্থানীয় সূত্রের খবর এই বিষয়টি রুমার এক প্রতিবেশী জেঠু মোটেই ভাল চোখে দেখতেন না।’

যদিও তাতে পাত্তা দিতে নারাজ রুমা। নামখানার এই ঘটনার পর রুমা বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে তাঁর এলাকায়। ‘রুমার এই উদ্যোগ কে যদি আপনিও সমর্থন করে থাকেন তাহলে অবশ্যই প্রতিবেদনটি বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না।’