সকাল ৮:০৯, ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

এবার ইতালিয়ান মন্ত্রীর সঙ্গে রোনালদোর কথার লড়াই

স্পোর্টস ডেস্ক: পর্তুগাল জাতীয় দলের হয়ে খেলতে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। লিসবনে আইসোলেশন শেষ না করেই উড়ে এসেছেন ইতালিতে। তুরিনে নিজ বাসভবনে কোয়ারেন্টিনে আছেন তিনি।

সরকারের দেয়া কোভিড প্রোটকল ভেঙে ইতালিতে প্রবেশ করেছেন রোনালদো। জুভেন্টাস মহাতারকার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনেন দেশটির ক্রীড়ামন্ত্রী ভিনসেনজো স্পাদাফোরা।

রোনালদো অবশ্য অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। তার কথায় মন্ত্রী মিথ্যা বলেছেন।
নিজ ইনস্টাগ্রামে শুক্রবার লাইভ হয়েছিলেন পর্তুগীজ অধিনায়ক।
তিনি বলেন, ‘এখানে ইতালিতে এক ভদ্রলোক আছেন। তার নাম আমি বলতে চাচ্ছি না। তিনি দাবি করেছেন, আমি নাকি নিয়ম মানিনি। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।’

৩৫ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডের দাবি তিনি নিয়মবহির্ভূত কিছুই করেননি।
‘আমি যা করেছি, সব নিয়ম মেনেই করা। আমি স্পষ্ট বলে দিতে চাই। যা করবো সব নিয়ম মেনেই। সবকিছুই নিয়মের মধ্যেই করেছি।’ যোগ করেন রোনালদো।

সবকিছুকে মিথ্যা অপবাদ হিসেবে উল্লেখ করেছেন সিআর সেভেন।
তিনি বলেন, ‘দাবি করা হয়েছে আমি নাকি ইতালির আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নই। এগুলো সব মিথ্যা অপবাদ। আমি সব ঠিকঠাক মতোই করেছি। নিয়ম মেনেই সব করা হয়েছে। দল ছাড়ার পর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তুরিনে নেমেছি। আমি কারও সান্নিধ্যে আসিনি।’

এদিকে ইতালিয়ান গণমাধ্যমে আনসার সঙ্গে কথা বলেছেন ইতালিয়ান ক্রীড়ামন্ত্রী।
ভিনসেনজো স্পাদাফোরা বলেন, ‘কোনও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে খেলোয়াড়কে শেখানো হয় না অহংকারী হওয়া অথবা অসম্মানজনক কথা বলা। এমনকি মিথ্যা বলা।

এমন পরিস্থিতিতে আপনি যতটা সুপরিচিত হবেন ততটা দায়িত্ববান হতে হবে। কথা বলার আগে অবশ্যই চিন্তা করতে হবে। যাতে সেটা ভালো উদাহরণ হিসেবে ব্যবহার করা যায়।
আমি বিষয়টি নিয়ে সব সময় কথা বলতে চাই না। আবারও বলছি, আমার প্রত্যাশা যারা কোভিড পজেটিভ হয়েছেন প্রত্যেকেই দ্রুত সেরে উঠুক।’