রাত ৮:৩৩, ২১শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







বান্দরবানে সুবর্ণজয়ন্তী ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন

অসীম রায়,বান্দরবান: সারাদেশের ন্যায় বান্দরবানে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে পতাকা প্রদক্ষীন র‍্যালী করেছেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা বাংলাদেশ আনসার ওগ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী।

আজ ১ লা ডিসেম্বর বুধবার দুপুরে বান্দরবান ঈদগাহ মাঠ প্রাঙ্গণে মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম, বিপি, ওএসপি, এনডিসি, পিএসসি এঁর নেতৃত্বে নির্দেশে ও বান্দরবান আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী কমান্ডার শাহদাত হোসেন নেতৃত্বে মুজিববর্ষের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বান্দরবানে পতাকা প্রদক্ষিণ র‌্যালি উদযাপনের কর্মসূচি পালন করা হয়।

সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ৫০ টি পতাকা নিয়ে ৫০ জন আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা একটি সুসজ্জিত দল ৫০ মিনিটব্যাপী পতাকা র‌্যালির মাধ্যমে বান্দরবান শিশু পার্ক হতে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেছে বান্দরবান ঈদগাহ মাঠে সমাপ্তি ঘটে। পরে ঈদগাহ মাঠে ক্ষুদ্র পরিসরে আলোচনা সভা আয়োজন করা হয়।

আনসার ও ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংক ব্যবস্থাপক আবু রাসেল, সার্কেল অ্যাডজুরেন্ট হেলাল উদ্দিন, সদর উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা আবদুর রহিম, রোয়াংছড়ি উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা মো: তানজির আজাদসহ জেলা উপজেলা কার্যালয়ের সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী, ব্যাটালিয়ন আনসার, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বান্দরবান আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী কমান্ডার শাহদাত হোসেন বক্তব্যে পানকৌড় নিউজ কে বলেন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী দেশের সর্ববৃহৎ সুশৃঙ্খল বাহিনী। তিনি বলেন জননিরাপত্তার পাশাপাশি এবাহিনীর সদস্যগণ দেশের গৌরব উজ্জ্বল ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি এবং সর্বোপরি দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার্থে সর্ব্বোচ্চ পেশাদারিত্ব সহকারে নিরন্তর নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

এ কর্মসূচির মাধ্যমে জনসাধারণ মহান মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযু্দ্ধের চেতনা, স্বাধীনতার তাৎপর্য ও গুরুত্ব অনুধাবন করে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জনকল্যাণমূলক কাজের মাধ্যমে আর্থসামাজিক উন্নয়নে অসামান্য ভূমিকা পালন করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং জাতীয় সকল গুরুত্বপূর্ণ কাজে ও দেশের সংকটকালীন সময়ে অতীতের মত বান্দরবান পার্বত্য জেলার আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রতিটি সদস্য জনগণের পাশে থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করার অভিমত প্রকাশ করেন।