সকাল ৮:০৯, ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ







সুনামগঞ্জে পুলিশের দুই এসআই ক্লোজড, চলছে বিভাগীয় তদন্ত

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি,: সুনামগঞ্জে ভারতীয় মদ উদ্ধার করে জব্দ তালিকায় না উঠিয়ে বিক্রি করে দেওয়ার ঘটনায় পুলিশের দুই এসআইকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। ওই দুই এসআই হলেন- নোবেল সরকার ও অপূর্ব সরকার।

আজ রবিবার (৭ই মার্চ) থেকে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত শুরু করা হয়েছে বলে জানাগেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- গত ২৮শে ফেব্রুয়ারি দোয়ারাবাজার থানার বাংলাবাজার এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান
পরিচালনা করে ৪ কার্টন অফিসার চয়েজ মদসহ মনির হোসেন ও আলামিন নামের দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে এসআই নোবেল সরকার ও অপূর্ব সরকার। পরে ১ কার্টন মদ জব্দ দেখিয়ে গ্রেফতারকৃত দুই মাদক ব্যবসায়ীর নামে থানায় মামলা দায়ের করেন। আর বাকি ৩কার্টন মদ বাংলাবাজারের তানিয়েল নামের এক তরুনের কাছে বিক্রি করে দেয় দুই এসআই নোবেল সরকার ও অপূর্ব সরকার।

এঘটনাটি জানতে পেরে গত মঙ্গলবার ডিবি পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর শামীম আখঞ্জি তানিয়েলের ভাই তানভিরের বাংলাবাজারের অবস্থিত দোকান থেকে ৩ কার্টন মদ উদ্ধার করে তার উপরস্থ কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানান। পরে সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাহেব আলী পাঠান। প্রাথমিক ভাবে দুই এসআই নোবেল সরকার ও

অপূর্ব সরকারের অনিয়মের ঘটনাটি প্রমানিত হওয়ায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান তাদেরকে দোয়ারাবাজার থানা থেকে পুলিশ লাইন সুনামগঞ্জে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তারই প্রেক্ষিতে গত শুক্রবার (৫ই মার্চ) বিকেলে অভিযুক্ত দুই এসআইকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়।

আজ রবিবার (৭ই মার্চ) দুপুর ২টায় দোয়ারাবাজার থানার ওসি মোঃ নাজির আলম এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন- পুলিশ সুপারের নির্দেশে দুই এসআই নোবেল সরকার ও অপূর্ব সরকারকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত শুরু করা হয়েছে।