দুপুর ২:৪৪, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







আন্তঃব্যক্তিক ও আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি বৃদ্ধি করে সমাজে ধর্মীয় সম্প্রীতি সুসংহত করতে হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান বলেছেন, আন্তঃব্যক্তিক ও আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি বৃদ্ধি করে সমাজে ধর্মীয় সম্প্রীতি সুসংহত করতে হবে। এ বিষয়ে  শিক্ষা, সামাজিক, ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানসমূহকে আরো বেশি মনোযোগী হয়ে প্রয়োজনীয় কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে।

আজ রবিবার সচিবালয়ে তাঁর অফিস কক্ষ থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ মিডিয়া এন্ড প্রেস কর্তৃক আয়োজিত ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের সংবিধানে ধর্ম নিরপেক্ষতার মূলনীতি যুক্ত করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের ভিত্তি স্থাপন করে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির আদর্শ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, তখনই একটি অশুভ শক্তি বাংলাদেশের সম্প্রীতির পরিবেশকে নষ্ট করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষা, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ, মাদকাসক্তি ও অন্যান্য সামাজিক সংকটের বিরুদ্ধে জনমত গঠনের জন্য ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে দেশের বিভাগ ও জেলা পর্যায়ে সফলভাবে নিয়মিত আন্তঃধর্মীয় সংলাপের আয়োজন করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে এ কার্যক্রম উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সম্প্রসারণের লক্ষ্যে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অস্ট্রেলিয়া লেবার পার্টির এমপি ও শ্যাডো মাল্টিকালচারাল মন্ত্রী স্টিভ ক্যাম্পার ও এমপি আনুলাক চান্ডিভং।

 সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে আরও বক্তব্য রাখেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী এনামুল হাসান, অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ শফিউর রহমান। এছাড়াও সভায় অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ কম্যুনিটির বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংবাদিক ও ধর্মীয় নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।