সন্ধ্যা ৬:২১, ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ







দাড়ি কাটতে বলে মোদিকে একশ’ রুপি পাঠালেন চা বিক্রেতা

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দাড়ি কাটার পরামর্শ দিয়ে চিঠি দিয়ে তার সঙ্গে একশ’ রুপির মানি অর্ডার পাঠিয়েছেন দেশটির এক চা বিক্রেতা। মহারাষ্ট্রেরন বারামতীর বাসিন্দা অনিল মোরে নামের এক চা বিক্রেতা এই চিঠি ও মানি অর্ডার পাঠিয়েছেন। সঙ্গে এক চিঠিতে বেশ কিছু পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। হিন্দি ভাষার স্থানীয় এক সংবাদমাধ্যমের বরাতে এই খবর জানিয়েছে নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত দেড় বছর ধরে ভারত জুড়ে আরোপ করা বিধিনিষেধের কারণে দেশটির অসংগঠিত সেক্টর মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আর তা নিয়েন হতাশ হয়ে পড়েছেন এই খাতে কর্মরত বহু মানুষ।

সেই হতাশা থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠিয়েছেন অনিল মোরে। মহারাষ্ট্রের ইন্দোপুর সড়কে একটি বেসরকারি হাসপাতালের বাইরে ছোট একটি চা দোকান চালানো অনিল তার চিঠিতে লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি দাড়ি বড় করছেন। তার যদি কিছু বাড়াতে হয় তাহলে দেশের মানুষের কর্মসংস্থান বাড়ানো উচিত। জনগণকে টিকা প্রদানের গতি বাড়ানো উচিত। বিদ্যমান স্বাস্থ্য সেবার সুযোগ বাড়ানো উিচত। গত দুইটি লকডাউনের কারণে মানুষের যে দুর্ভোগ হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর তা লাঘব করা উচিত।’

অনিল মোরে চিঠিতে লিখেছেন, প্রধানমন্ত্রীর পদ দেশের সবচেয়ে বড় পদ। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমার চূড়ান্ত শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা রয়েছে। আমার জমানো টাকা থেকে তাকে আমি একশ’ রুপি পাঠাচ্ছি যাতে তিনি দাড়ি শেভ করতে পারেন। তিনি সর্বোচ্চ নেতা আর তাকে আঘাত করা আমার উদ্দেশ্য নয়। তবে মহামারির মধ্যে গরীবদের কষ্ট যেভাবে বাড়ছে তাতে এটা তার মনোযোগ আকর্ষণের একটা উপায় হতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে অনিল মোরে করোনায় মারা যাওয়া মানুষদের পরিবারকে পাঁচ লাখ রুপি এবং লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্থদের তিন লাখ রুপি করে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার অনুরোধ জানান।