সকাল ১১:৩৯, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ







পিছিয়ে যাচ্ছে সরকারিভাবে করোনা টিকা উৎপাদন

সংসদীয় কমিটির সূত্র জানায়, গতকালের বৈঠকে টিকা উৎপাদনপ্রক্রিয়ার অগ্রগতি নিয়ে একটি প্রতিবেদন তুলে ধরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়, টিকার কাঁচামাল ও প্রযুক্তি আমদানির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি ডায়াডিকের সঙ্গে ওষুধ উৎপাদনকারী সরকারি প্রতিষ্ঠান এসেনসিয়াল ড্রাগস কোম্পানি তিনবার ভিডিও কনফারেন্স করেছে। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সইয়ের জন্য একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। এ ছাড়া রাশিয়ার স্পুতনিক-ভি ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের আবিষ্কৃত ‘প্রোটিন ভ্যাকসিন’ তৈরির বিষয়েও আলোচনা চলছে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, টিকা উৎপাদনের লক্ষ্যে যন্ত্রপাতি উৎপাদন ও সরবরাহকারী বিভিন্ন বিদেশি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রাথমিকভাবে প্রাক্কলিত দর প্রস্তুত করা হয়েছে।

সংসদীয় কমিটিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে পরামর্শ করে স্বল্প সময়ের মধ্যে ইস্পাতের অবকাঠামো নির্মাণ করে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি স্থাপনের মাধ্যমে টিকা উৎপাদনের ইউনিট চালুর চেষ্টা করা হচ্ছে। এ জন্য বিভিন্ন প্রকৌশল প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করে পরামর্শ নেওয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে সংসদীয় কমিটির সভাপতি শেখ ফজলুল করিম সেলিম সাংবাদিকদের বলেন, টিকা উৎপাদনের ব্যবস্থা করতে প্রকল্প প্রস্তাব তৈরি করতে হবে। একজন পরামর্শক নিয়োগ দিতে হবে। কোন দেশ থেকে কাঁচামাল, যন্ত্রপাতি আসবে, সেগুলো ঠিক করতে হবে। এসব কাজে একটু সময় লাগবে। এ জন্য সংসদীয় কমিটি এখন এক বছরের মধ্যে টিকা বোতলজাত করে সরবরাহ করা নিশ্চিত করার সুপারিশ করেছে। ছয় মাসের মধ্যে অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে। কমিটি মন্ত্রণালয়কে বলেছে, এই কাজে যেন আমলাতান্ত্রিক জটিলতা বা দীর্ঘসূত্রতা না হয়।

শেখ ফজলুল করিম সেলিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, আ ফ ম রুহুল হক, মুহিবুর রহমান, একরামুল করিম চৌধুরী, আবদুল আজিজ, সৈয়দা জাকিয়া নুর, রাহগির আলমাহি এরশাদ ও আমিরুল আলম অংশ নেন।