দুপুর ১:৩১, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ







অতিরিক্ত ঘাম ও দুর্গন্ধ নিয়ন্ত্রণে যা করবেন

এমন অনেক মানুষই আছেন যারা তুলনামূলক একটু বেশি ঘেমে থাকেন। কখনো বৃষ্টি আবার কখনো প্রচুর গরম। এমন আবহাওয়ায় ঘেমে গা ভিজে গেলে বিরক্ত লাগা স্বাভাবিক। চিন্তার কারণ নেই। ঘাম নিয়ন্ত্রণ করার উপায় রয়েছে। তবে এটা মনে রাখতে হবে যে, ঘাম হওয়া ভালো। বিশেষ করে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে। সেই ঘাম অতিরিক্ত হলেই অস্বস্তিকর লাগে। এবার তাহলে ঘামকে নিয়ন্ত্রণে আনার উপায়গুলো জেনে নেয়া যাক-

ডিওড্র্যান্ট : কয়েকদিনের জন্য পছন্দের সুগন্ধি তুলে রাখুন। ডিওড্র্যান্ট ব্যবহার করুন। অনেকের শরীরে ডিওড্র্যান্ট সহ্য হয় না। ত্বক জ্বালা করে। এ জন্য তারা শুরুতে একবার যাচাই করে নিতে পারেন। তবে অনলাইনের এই সময়ে কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা ছাড়া ডিও না নিয়ে যা ব্যবহারে অভ্যস্ত আপনি তাই ব্যবহার করুন। ভালো ফল পেতে রোল-অন ডিও নিতে পারেন।

ট্যালকম পাউডার : ঘাম নিয়ন্ত্রণ করার সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করা। খুব বেশি দামও না এর। গোসলের পর গায় লাগাতে পারেন এটি। এতে শরীরে ঘামের দুর্গন্ধ কম হয়।

শাওয়ার জেল : প্যারাবেন না অন্য কোনো ক্ষতিকর রসায়ন নেই এমন ধরনের শাওয়ার জেল ব্যবহার করে ভালো ফল পেতে পারেন। সাধারণ সাবানের থেকে এর সুগন্ধ দীর্ঘস্থায়ী হয়ে থাকে। শরীরে ঘামও তুলনামূলক অনেক কম হয়ে থাকে।

ডায়েট : খাদ্য তালিকায় খেয়াল রাখা জরুরি। কিছু খাবার রয়েছে যা হজম হতে দেরি হয় এবং শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি করে। তাই গরমে সালাদ বা হালকা খাবার খাওয়া উত্তম। অনেক ক্ষেত্রে খাদ্যাভ্যাসের কারণেই ঘামের দুর্গন্ধ হয়। ক্যাফিনও হাত-পা ঘামিয়ে দেয়। এ কারণে ঘাম থেকে নিজেকে সুরক্ষা পাওয়ার জন্য কফি না খাওয়াই ভালো।

পোশাক : গরমে সাধারণত সুতি কাপড়ের পোশাক পড়ার কোনো বিকল্প হয় না। সুতি, লিনেনের মতো হালকা কাপড়ের পোশাক অনেক আরামদায়ক। এসব কাপড়ে পরিধানে শরীরে সহজেই হাওয়া-বাতাস প্রবেশ করতে পারে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা