রাত ৩:৪৪, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







গাবতলীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দাদী ও নাতনীকে পিটিয়ে জখম

এস এম সালমান হৃদয় বগুড়াঃ বগুড়ার গাবতলীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দাদী ও নাতনীকে বেদমভাবে পিটিয়ে জখম করলো প্রতিপক্ষরা। গুরুতর আহত দাদী ও নাতনী এখন গাবতলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শুক্রবার ২১মে সন্ধ্যা ৭টায় উপজেলার নেপালতলী ইউনিয়নের চকরাধিকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

জানা গেছে, উল্লেখিত নেপালতলী ইউনিয়নের চকরাধিকা গ্রামের মৃত হবিবর রহমান প্রাং এর ছেলে সঙ্গে একই গ্রামের কয়েকজনের সঙ্গে দীর্ঘদিন আগে থেকে জায়গা জমি ও পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে ২১শে মে সন্ধ্যা ৭টায় আশরাফ আলীর বৃদ্ধা মা আয়শা বেগমের (৮৫) এর সঙ্গে জায়গা জমি নিয়ে ঝগড়া ঝাটি শুরু করে। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষরা ওই বৃদ্ধাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাঁশের লাঠি দিয়ে বেদমভাবে মারপিট করে মারাত্মভাবে ফুলা-জখম করে।

এ সময় ওই বৃদ্ধার নাতনী জেরিন আকতার (১৩) তার দাদীকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাকেও মারপিট করে। পরে ওই প্রতিপক্ষরা রামদা ও কুড়াল দিয়ে গোয়ালঘর ও জানালা-দরজা ভাংচুর করে তিন লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করে। আহত ওই দাদী ও নাতনী এখন গাবতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় আহত জেরিন আকতারের বাবা আশরাফ আলী বাদী হয়ে ঘটনার রাতেই চকরাধিকা গ্রামের আঃ লতিফ, লুৎফর রহমান প্রাং, বাটু মিয়া, ফুল মিয়া, হাতেম আলী, হোসেন আলী, হাছেন আলী ও হযরত আলীকে অভিযুক্ত করে তিন লাখ টাকার ক্ষতিসাধনের অভিযোগ এনে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই অমিত বলেন, এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ হাতে পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।