সকাল ৬:৫০, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







নরসিংদীতে বজ্রপাতের সময় মেঘনায় নিখোঁজ জেলের লাশ উদ্ধার

সাইফুল ইসলাম রুদ্র, নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি: নরসিংদীর মেঘনায় মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতের সময় নদীতে পড়ে নিখোঁজ জেলে সুমন দাস (২৫) এর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের ১৮ ঘণ্টা পর আজ মঙ্গলবার সকালে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা তাঁর লাশ উদ্ধার করেন।

এর আগে গত সোমবার দুপুরে মেঘনা নদীর হাজীপুর অংশে নৌকায় চার জেলে মাছ ধরার সময় এই বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় মিকুঞ্জ দাস (৪৫) নামের এক জেলের মৃত্যু হয়। আহত হন সঙ্গে থাকা আরও তিন জেলে। ওই সময় থেকে নিখোঁজ ছিলেন জেলে সুমন দাস।

সুমন দাস নরসিংদী সদর উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকার ধিরাই চন্দ্র দাসের ছেলে।

নিহতের পরিবারের সদস্যরা ও স্থানীয়রা জানান, হাজীপুরের নয়াপাড়া এলাকার সুমন ও মিকুঞ্জসহ ৪ জন জেলে মেঘনা নদীতে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন। দুপুরে প্রচন্ড বৃষ্টি শুর হলে তারা নৌকাটি একটি বাঁশের খুটিতে বেঁধে নৌকার ভেতরে অবস্থান নেয়। পরে বজ্রপাতের সময় নৌকা থেকে নদীতে পড়ে গিয়ে জেলে সুমন দাস নিখোঁজ হন। এ সময় আহত তিনজনকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে হাসপাতালটির কর্তব্যরত চিকিৎসক মিকুঞ্জ দাসকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই সময় থেকে নিখোঁজ সুমন দাসকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন চেষ্টা চালাচ্ছিলেন।

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোহাম্মাদ রায়হান জানান, নিখোঁজ সুমন দাসকে উদ্ধারের জন্য ডুবুরি দলকে খবর দেওয়া হলে তারা রাত পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে তাকে খোঁজে পায়নি। মঙ্গলবার সকালে পুনরায় ডুবুরি দল কাজ শুর করতে গেলে নদীতে ভাসমান অবস্থায় সুমন দাসের লাশ দেখতে পান তারা। পরে তাঁর লাশ উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

নরসিংদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার জানান, মেঘনায় মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতের এই ঘটনায় এ নিয়ে দুজন জেলের মৃত্যু হল। নিহত সুমন দাসের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।