রাত ১২:৪৬, ১২ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







গৌরীপুর রেলওয়ে জংশনের ফুটওভার ব্রিজের সিঁড়ি ভেঙে চলাচল বন্ধ

শাহ্ আলম ভূঁইয়া, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের গৌরীপুর রেলওয়ে জংশনের ফুটওভার ব্রিজের কয়েকটি সিঁড়ি ভেঙে গেছে। এতে করে যাত্রী সাধারণ ওই ফুটওভার ব্রিজ দিয়ে প্লাটফরম পারাপার হতে পারছে না। ফলে বাধ্য হয়েই তাঁদের রেললাইনের ওপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এবং চরম দুর্ভোগের শিকার হয়ে প্লাটফরম পারাপার হতে হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, সিঁড়ি ভেঙে যাওয়ায় ফুটওভার ব্রিজটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে গেছে। বিশেষ করে যখন প্লাটফরমে একাধিক ট্রেন থাকে তখন যাত্রীরা ট্রেনের বগির ফাঁক দিয়ে ও রেললাইনের ওপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে মালামালসহ পারাপার হয়। দ্রুত ফুটওভার ব্রিজটি সংস্কার করার দাবি জানান তাঁরা।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, ১৮৮২ সালে গৌরীপুর রেলওয়ে জংশন প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিদিন এই স্টেশন হয়ে আন্তঃনগর, মেইল, কমিউটার ও লোকালসহ ৩২ট্রি ট্রেন চলাচল করে। স্টেশনে ট্রেন চলাচলের জন্য ছয়টি লাইন রয়েছে। এরমধ্যে তিনটি লাইনে ট্রেন চলাচল করে।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, গৌরীপুর জংশনের পূর্বপাশে চার নম্বর লাইনের পাশ থেকে শুরু হওয়া সিঁড়িযুক্ত ফুটওভার ব্রিজটি শেষ হয়েছে পশ্চিমপাশে প্লাটফরমের মূল অংশে গিয়ে। এরমধ্যে চার নম্বর লাইনের পাশে ফুটওভার ব্রিজের প্রথম ধাপের সিঁড়িগুলো ভেঙে পড়ে গেছে। সিঁড়ির পলেস্তার খসে পড়ে যাচ্ছে। বেরিয়ে এসেছে রড। জং ধরেছে লোহার রেলিংয়ে। ফুটওভার ব্রিজের প্রবেশ পথে কোন ধরণের নিষেধাজ্ঞা ও সর্তকতা বাণী নেই। তাই অনেক সময় ট্রেনযাত্রীরা মালামাল নিয়ে প্লাটফরমের পশ্চিমপাশ থেকে ফুটওভার ব্রিজ পারাপার হতে গিয়ে ভাঙা সিঁড়ির কারণে পূর্ব পাশে নামতে পারে না। তাদের ঘুরে আসতে হয়।

পৌর কাউন্সিলর আব্দুর রউফ মোস্তাকিম বলেন, প্রায় দশ বছর ধরে ফুটওভার ব্রিজটি অকেজো অবস্থায় পড়ে আছে। এটি সংস্কার করার জন্য আমরা স্টেশন মাস্টারকে জানিয়েছি। কিন্ত সংস্কার না হওয়ায় ট্রেন যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

গৌরীপুর রেলওয়ে জংশনের স্টেশন মাস্টার অখিল চন্দ্র দাস বলেন, ফুটওভার ব্রিজটি সংস্কারের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। রেলওয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগ স্টেশন পরিদর্শন করে ফুটওভার ব্রিজটি দেখে গেছেন। আশা করছি দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।