সকাল ৭:৪৭, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







তাজিয়া মিছিলকে কেন্দ্র করে নাশকতার কোনো তথ্য নেই: ডিএমপি কমিশনার

আসন্ন পবিত্র আশুরায় শিয়া সম্প্রদায়ের তাজিয়া মিছিল যেসব রাস্তা দিয়ে অতিক্রম করবে নিরাপত্তার জন্য সেসব রাস্তা সম্পূর্ণ নিরাপত্তার বলয়ে বেষ্টিত থাকবে ও আগে থেকে বোম ডিসপোজাল ইউনিট ও ডগ স্কোয়াডের মাধ্যমে সুইপিং করা থাকবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিকেলে হোসনি দালান ইমামবাড়ায় তাজিয়া মিছিলকে কেন্দ্র করে নেওয়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

শফিকুল ইসলাম কমিশনার বলেন, তাজিয়া মিছিলের আনুষ্ঠানিকতা মূলত ৭ আগস্ট থেকে শুরু হয়ে ৯ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। তবে কিছু কিছু জায়গায় ৬ আগস্ট থেকে শুরু হয় আনুষ্ঠানিকতা। মূলত এই অনুষ্ঠানটি চার দিনব্যাপী।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, তাজিয়া মিছিলের দু-একদিন আগে থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকার আশেপাশের হোটেলগুলোতে রেড ও ব্লক রেড পরিচালনা করা হবে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাজিয়া মিছিল নিয়ে কোনো ধরনের হিংসাত্মক বা অপপ্রচার বক্তব্য প্রচার করা হচ্ছে কি না সে বিষয়ে আমাদের নজরদারি থাকবে। সে অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা নেব। তাজিয়া মিছিলে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে আমরা গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করছি। গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর পক্ষ থেকে কোনো ধরনের তথ্য পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।

তিনি আরও বলেন, প্রতি বছর তাজিয়া মিছিলে লক্ষাধিক মানুষ অংশ নেয়। তাজিয়া মিছিলের কারণে রাস্তায় কিছুটা যানজটের সৃষ্টি হতে পারে সেক্ষেত্রে আমি নগরবাসীকে অনুরোধ জানাবো তারা যেন বিষয়টি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখেন। এছাড়া যানজট নিয়ন্ত্রণে আমাদের পক্ষ থেকে যা করণীয় তা আমরা করব। আমরা আশা করি অনেক সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে এই ধর্মীয় উৎসব সম্পন্ন করতে পারব।

তাজিয়া মিছিলকে কেন্দ্র করে কোনো ধরনের নাশকতার তথ্য রয়েছে কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ২০১৫ সালে কিছু জঙ্গি তৎপরতার কারণে তাজিয়া মিছিলে একটি ঘটনা ঘটেছিল। তবে আপাতত তাজিয়া মিছিলকে কেন্দ্র করে নাশকতার কোনো তথ্য আমাদের কাছে নেই। গোয়েন্দা সূত্রে অথবা ডিএমপির সিটিটিসি সূত্রে এই ধরনের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।