রাত ৩:২২, ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







টপ অর্ডারের চার ফিফটিতে ৩০০ পেরোল বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টিতে সিরিজ হারের পর ওয়ানডেতে ফিরেই দারুণ ব্যাটিং শৈলি দেখিয়েছে টাইগাররা। টপ অর্ডারের ৪ ব্যাটসম্যানের ফিফটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২ উইকেট ৩০৩ রান তুলেছে বাংলাদেশ। জিততে হলে ৩০৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে হবে স্বাগতিকদের।

তামিম ইকবাল, লিটন দাস, এনামুল হকের পর অর্ধশতক পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ৪৯ বলে ৫২ রান করে অপরাজিত ছিলেন তিনি, মাহমুদউল্লাহ খেলেছেন ১২ বলে ২০ রানের ক্যামিও। এ নিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডেতে সপ্তম বারের মতো ৩০০ পেরোল বাংলাদেশ। মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহর জুটিতে ২৫ বলে উঠেছে ৩৬ রান।

টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে তামিম ইকবাল ও লিটন দাস শুরুটা করেছিলেন সতর্ক। তবে উইকেট হারাননি তাঁরা। দুজনের ১১৯ রানের উদ্বোধনী জুটি বাংলাদেশকে এনে দেয় শক্ত ভিত। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৮ হাজার রান করার পর তামিম ফিরলেও এনামুলকে নিয়ে লিটন যোগ করেন মাত্র ৪৫ বলে ৫২ রান।

২৬তম ওভারে সিকান্দার রাজার ৪র্থ ডেলিভারিটি উড়িয়ে মারতে গিয়ে টাইমিং সেভাবে হয়নি তামিমের। থার্ডম্যান কাইয়ার হাতে ধরা পড়েন।

এর আগে ৮৮ বলে ৬২ রানের ইনিংস খেলেন এ ড্যাশিং ওপেনার। লিটনের সাথে তার ১১৯ রানের জুটি ভাঙে। তামিমের আউটের সময় ৪৬ রানে ব্যাট করছিলেন লিটন। এরপর তিন বছর পর ওয়ানডে দলে ঠাঁই পাওয়া এনামুল হক বিজয়ের সঙ্গে জুটি বাঁধেন লিটন।

দারুণ ব্যাটিং করছিলেন লিটন। এগিয়ে যাচ্ছিলেন সেঞ্চুরির দিকে। ৩৪তম ওভারের প্রথম বলেই ঘটে অনাকাঙিক্ষত ঘটনা। ব্যক্তিগত ৮১ রানে এসে হঠাৎ পায়ে টান পড়ল লিটনের। চোট এতোটাই বেশি ছিল যে উঠেই দাঁড়াতে পারলেন না। ফলে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে স্ট্রেচারে শুয়েই মাঠ ছাড়েন এ ডানহাতি ওপেনার। এর আগে বিজয়ের সঙ্গে ৪০ রানের পার্টানারশিপ গড়েন লিটন।

লিটন ফিরলেও চারে নামা মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে দারুণ গতিতে ছুটতে থাকেন বিজয়। ৯৬ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান। এরমধ্যে ৪৭ বলে ফিফটি তুলে নেওয়া বিজয় ৬২ বলে ৬ চার ও ৩ ছয়ে ৭৩ রান করে ভিক্টর নিউইচির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন। অভিষিক্ত এই জিম্বাবুইয়ানের এটি আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে প্রথম উইকেট।

বিজয় ফিরলেও টাইগারদের রানের গতি সচল রাখেন মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এরমধ্যে মুশফিকও ফিফটি তুলে নেন।