সকাল ৬:১৫, ২৮শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ







এবার লাইভে এসে যা বললেন ওমর সানী (ভিডিও)

ঢালিউডের তারকা দম্পতি ওমর সানী-মৌসুমী। দীর্ঘ ২৭ বছরের দাম্পত্যে দুই সন্তানের পিতা-মাতা তারা। বছর খানেক আগে ছেলেকে বিয়ে করিয়ে ঘরে পুত্রবধূ এনেছেন। হঠাৎই তাদের সংসারে ছন্দপতন ঘটেছে। বেশ কিছুদিন ধরেই মৌসুমীর সঙ্গে ওমর সানীর মানসিক দ্বন্দ্ব চলছে।

সম্প্রতি চিত্রনায়ক জায়েদ খানের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়ান ওমর সানী। রোববার (১২ জুন) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সংসার ভাঙাসহ বেশ কিছু অভিযোগে সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ওমর সানী। তবে মৌসুমী জানিয়েছেন, সানী মিথ্যাচার করছে। তার সঙ্গে জায়েদ খানের এমন কিছুই ঘটেনি।

সোমবার (১৩ জুন) বিকেলে ফেসবুক লাইভে আসেন ওমর সানী। সেখানে তিনি পুরো বিষয়টিতে নিজের অবস্থান তুলে ধরেন। পাশাপাশি ছেলে ফারদিন ও মেয়ে ফাইজাকে নিজের গার্ডিয়ান ঘোষণা করেন এবং জানান ছেলে-মেয়েরাই পুরো বিষয়টির ব্যাখ্যা দিবেন।

লাইভে ওমর সানী জানান, ‘আপনারা বুঝতেই পারছেন একটা বিশেষ কারণে আমি লাইভে আসছি। দেখুন আমার ৩১-৩২ বছরের ফিল্ম ক্যারিয়ারে আজপর্যন্ত কেউ আঙুল তুলতে পারবে না। আমি বিয়ে করেছি ২৭ বছর আগে। আমার ফুটফুটে দুটি সন্তান রয়েছে। আমার ছেলে বিয়েও করেছে। গতকাল (১২ জুন) আমি জায়েদ খানের বিরুদ্ধে শিল্পী সমিতিতে অভিযোগ করেছি। আমি এখনও আমার অভিযোগে অটল।

বাংলা চলচ্চিত্রে আমার চাওয়া-পাওয়ার কিছুই নেই। হিট, সুপারহিট, বাম্পার হিট, নম্বর ওয়ান সবই আল্লাহ আমাকে দিয়েছে। দর্শকের ভালোবাসাও পেয়েছি। কোনো ইউটিউব চ্যানেলে আসতে আমি আগ্রহী নই। এ বিষয়ে কথা বলতে অনেকেই আমাকে ফোন করছেন। এ জন্য আমি আমার ফেসবুক প্ল্যাটফর্মকে বেছে নিয়েছি।

মৌসুমী আমার স্ত্রী, আমার সন্তানের মা। তাকে অসম্মান করে আমি একটি কথাও বলব না। সে কি মনে করে জায়েদ খানের পক্ষে কথা বলছে সেটা আমি জানি না। জায়েদ খান সম্পর্কে বাংলা চলচ্চিত্র জানে, বর্তমান ক্যাবিনেট জানে, প্রযোজক সমিতির ক্যাবিনেট জানে, পরিচালক সমিতির ক্যাবিনেট জানে এবং দর্শক জানে।

সামনে আমার গার্ডিয়ান হিসেবে আমার ছেলে ফারদিন এবং মেয়ে ফাইজা অবশ্যই আপনাদের সবকিছু ক্লিয়ার করবে। আমার পরিবারের ইজ্জত মানে আমার ইজ্জত, আমার স্ত্রীর ইজ্জত মানে আমার ইজ্জত, আমার ছেলেমেয়ের ইজ্জত মানে আমার ইজ্জত। আমি চাই না, এই ২৭ বছরে এসে কোনো ধরনের ভুল বোঝাবুঝি (পরিবারের মধ্যে) হোক। কিন্তু বাইরের মানুষ এসে যেভাবে ভাঙার চেষ্টা করছে আপনারা নিজেরাই জানেন সে কে। আমি তার সম্পর্কে আর কিছুই বলব না।

সাংবাদিক ভাইদের কাছে অনুরোধ, আমাকে আর ফোন করার দরকার নেই। আপনাদের যা জানার এই ভিডিও থেকে জেনে নেবেন। দর্শক যারা আছেন, তারা কেউ মৌসুমীকে নিয়ে কোনো বাজে মন্তব্য করবেন না। যা বলার আমাকে বলবেন।

আমি একজন কার্ডিয়াক পেশেন্ট। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ যাতে আমাকে সুস্থ রাখে, নামাজের মধ্যে রাখে। আমার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন। আমিও আপনাদের জন্য দোয়া করব।

আমি কোনো খারাপ মানুষের সঙ্গে নাই। আমি আমার পরিবার সঙ্গেই থাকতে চাই। আমার ছেলেমেয়ে, স্ত্রীকে নিয়েই থাকতে চাই। আপনারা কেউ কোনো বাজে মন্তব্য করবেন না। যদি করতেই হয়, আমাকে নিয়ে কইরেন। সবাই ভালো থাকবেন।’