রাত ৮:১৭, ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ







২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে মাস্টারপ্ল্যান তৈরি হচ্ছে

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে উচ্চ অর্থনীতির প্রযুক্তিনির্ভর, জ্ঞানভিত্তিক স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে মাস্টারপ্ল্যান তৈরি হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন ধারণা অনুযায়ী নারী কিংবা শারীরিকভাবে অক্ষম কেউই পিছিয়ে থাকবে না। 

আজ সোমবার (১৩ জুন) বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল মিলনায়তনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে “গার্লস ইন আইসিটি দিবস”উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিনিয়র সচিব এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক ড. মোহাম্মাদ আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এনজিও অ্যাফেয়ার্স ব্যুরোর মহাপরিচালক কে এম তরিকুল ইসলাম, সিএসআইডি নির্বাহী পরিচালক খন্দকার জহুরুল আলম এবং প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের ডিরেক্টর ডেনিস ও প্রায়ান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিনিয়র সচিব বলেন, নারীদের প্রযুক্তিতে অন্তর্ভুক্তির অনেক সুযোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে নারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে  শিক্ষা ব্যবস্থায় অধিক অন্তর্ভুক্তি প্রয়োজন। আর যেহেতু নারীরা হ্যাকারদের প্রধান টার্গেট; তাই মেয়েদের অনলাইন সেফটি নিয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এ সময় গার্লস ইন আইসিটি দিবসকে জাতীয়ভাবে পালনের উদ্যোগ নিতে প্রয়োজনীয় গাইডলাইন তৈরির আগে দিবস উদ্‌যাপনে তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ সবসময় তাদের পাশে থাকবে বলেও জানান তিনি। নারীদের নিয়েই বাংলাদেশ ২০৪১ সালের আগেই স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

আলোচনা সভা শেষে সিএসআইডির প্রশিক্ষণ বিভাগের সহকারী পরিচালক আনিকা রহমান লিপি, স্টারটেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক রেজওয়ানা খান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যলায়ের অধ্যাপিকা লাফিফা জামালকে বর্ষসেরা প্রযুক্তি নারী ব্যক্তিত্বের সম্মাননা দেয়া হয়।