রাত ৯:০৪, ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ







রাণীনগরকে শতভাগ গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষনার পূর্ব প্রস্তুতির সভা অনুষ্ঠিত

বিকাশ চন্দ্র প্রাং, নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলাকে শতভাগ গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষনার পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে মতামত প্রদান বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হুসেইনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে মতামত উপস্থাপন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু।

সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হুসেইন জানান, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক গৃহিত আশ্রয়ণ প্রকল্পের কয়েকটি ধাপের আওতায় উপজেলার একডালা, কালীগ্রাম, বড়গাছা ও কাশিমপুর ইউনিয়নে এই আশ্রয়ন পল্লী তৈরি করা হয়েছে। এরমধ্যে ১ম পর্যায়ে ৯০টি, ২য় পর্যায়ে ৩৩টি ও ৩য় পর্যায়ে ৪১টিসহ মোট ১৬৪টি ভ’মিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে পুর্নবাসন করা হয়েছে। দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট প্রতিটি বাড়িতে দুটি কক্ষ, সংযুক্ত রান্নাঘর, টয়লেট ও সামনে খোলা বারান্দাও রয়েছে। প্রতিটি আশ্রয়ন পল্লীতে বাড়ি নির্মাণের সঙ্গে সঙ্গেই বিদ্যুৎ সংযোগ, বিশুদ্ধ পানির জন্য টিউবয়েল স্থাপন, চলাচলের জন্য রাস্তা ও নামাযের জন্য মসজিদসহ প্রধান প্রধান প্রয়োজনগুলো নিশ্চিত করা হয়েছে।

এছাড়াও এই বাসিন্দাদের বিভিন্ন সময় তাদের বাড়ির আশেপাশের পরিত্যক্ত জায়গাগুলোতে সবজি বাগান তৈরি করে নিজেদের প্রয়োজন মিটিয়ে বিষমুক্ত সবজি বাজারে বিক্রি করার লক্ষ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে বিভিন্ন সবজির বীজ, ফলদ গাছের চারা ও প্রকল্প এলাকায় থাকা পুকুর ব্যবহার করে মাছ চাষ করাসহ হাঁস, মুরগি ও গবাদিপশু পালন করে আর্থিক ভাবে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে এবং এই ধারা আগামীতেও অব্যাহত রাখা হবে। এছাড়াও আশ্রয়ন পল্লীতে বসবাসরত বাসিন্দাদের দক্ষতা অনুসারে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান শেষে স্বল্প সুদের ঋণ প্রদানের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার কার্যক্রমও অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরো জানান, সম্প্রতি নতুন করে আবেদনের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে যাচাই ও বাছাই শেষে আরো ১২টি বাড়ির জন্য সরকারের কাছে চাহিদা প্রেরণের পাশাপাশি সেই সব বাড়ি নির্মাণের জায়গাও ইতিমধ্যই পরিদর্শনও করা হয়েছে। এই ১২টি বাড়ির বরাদ্দ পেলে উপজেলায় তেমন সংখ্যক কেউ গৃহহীন ও ভূমিহীন থাকবে না। তাই আমরা সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক রাণীনগর উপজেলাকে শতভাগ গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করার পাশাপাশি সরকারের উর্দ্ধতন বিভাগকে বিষয়টি অবহিত করতে পারি। আনন্দের বিষয় এই যে ইতিমধ্যই জেলা প্রশাসন জেলার প্রথম উপজেলা হিসেবে রাণীনগর উপজেলাকে শতভাগ গৃহহীন ও ভূমিহীন ঘোষনা করার সুপারিশ পাঠিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর।

সভায় এই বিষয়ে উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার ব্যক্তিরা মতামত প্রদান করেন। মতামত প্রদান করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শহীদুল ইসলাম, প্রকৌশলী শাহ মো. শহীদুল হক, রাণীনগর শের-এ বাংলা সরকারি মহাবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শরিফুল ইসলাম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এ্যাড. ইসমাইল হোসেন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সেলিম রেজা, স্থানীয় গনমাধ্যমকর্মী হারুনুর রশিদ, এসএম সাইফুল ইসলাম, শহীদুল ইসলাম, কালীগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব চাঁন, একডালা ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী শাহজাহান আলী। এসময় সকলেই রাণীনগর উপজেলাকে সরকারি ভাবে শতভাগ গৃহহীন ও ভূমিহীন উপজেলা হিসেবে ঘোষনার পক্ষে মতামত প্রদান করেন। এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের অন্যান্য দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধি, ৮টি ইউপি চেয়ারম্যান ও অন্যান্য গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।