রাত ১০:৩১, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







জলপাইয়ের নানা গুণ

অসীম রায়, বান্দরবান: জলপাইয়ের নাম শুনে অনেকের জ্বিবায় জল এসে যাবে, সবার ঘরে ঘরে আচার নারীদের প্রিয় রেসিপি। আজ ১৪ই নভেম্বর সকালে বাজার ঘুরে দেখা গেল প্রতি কেজি ৩০/ করে বিক্রি হচ্ছে জলপাই,

গুণেভরা আর মুখরোচক মৌসুমি ফল জলপাই। শীতের আমেজে বাংলাদেশ সব জায়গায় দেখা পাওয়া যায়। কাঁচা কিংবা পাকা,যে কোন অবস্থা তেই জলপাই খেতে বেশ সুস্বাদু। ভিটামিন – সি তে ভরপুর জলপাই শরীরের জন্য খুবই উপকারী ; কিন্তু কাঁচা জলপাইয়ের পুষ্টিগুণ অনেক বেশি। প্রতিদিন জলপাই খাওয়ার অভ্যাস করলে স্বাস্থ্য ভালো থাকে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও হার মানে।

সিভিল সার্জন ডা: নীহার রঞ্জন নন্দী,বলেন *
প্রতি ১০০ গ্রাম জলপাইয়ে খাদ্যশক্তি ৭০ কিলোক্যালরি, ৯ দশমিক ৭ শর্করা,৫৯ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১৩ মিলিগ্রাম ভিটামিন – সি।
গবেষণায় দেখা গেছে, এর তেলও খুবই স্বাস্থ্যকর। এবার জেনে নেওয়া যাক জলপাইয়ের কিছু উপকারিতা –
জলপাইয়ে থাকা অ্যান্টি অাক্সিডেন্ট হার্টে ব্লক বাধা দেয়। জলপাইয়ে রয়েছে মনো স্যাচুরেটেড ফ্যাট,যা হার্টঅ্যাটাক থেকে খুবই উপকারী।

জলপাইয়ের খোসায় রয়েছে প্রচুর পরিমানে আঁশ,যা কোলন ক্যানসার প্রতিরোধে সহায়তা করে। একইসাথে তেমনি ক্ষুদ্রন্ত থেকে শুরু করে পাকস্থলীর কোষের নান জটিলতা রোগ সারিয়ে তুলতেও সহায়তা করে।-

ডঃ জ্যোতিময় বলেন *
ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী একটি ফল জলপাই। বিভিন্ন ডাঃ মতে জলপাইয়ের তেল ইনসুলিনের কার্যকারিতা বাড়াতে সাহায্য করে। রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে এই ইনসুলিন। এজন্য জলপাইয়ের তেল ডায়াবেটিস রোগী জন্য বেশি উপকারী।

জলপাইয়ের মনো স্যাচুরেটেড চর্বিতে থাকে প্রদাহবিরোধী উপাদান। বয়সের কারণে অনেকে রই হাড়ের ক্ষয় হয়। হাড়ের ক্ষয়রোধ করে জলপাইয়ের তেল।

জলপাইয়ের প্রচুর পরিমানে ভিটামিন -এ পাওয়া যায়। ভিটামিন এ চোখের জন্য ভালো। যাদের চোখ আলো ও অন্ধকারে সংবেদনশীল তাদের জন্য ওষুধের কাজ করে জলপাই। এ ছাড়া জীবাণুর আক্রমণ, চোখ উঠা চোখের পাতায় ইনফেকশন জনিত সমস্যাও দুর করে।

জলপাইয় থাকা লিনোলিক আ্যসিড শরীরে বাড়তি মেদ কমাতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে জলপাই বা জলপাইয়ের তেল হজমের সময় এই বিশেষ আ্যসিড বেশ কিছুটা উৎপাদন হয়। ফলে তা শরীরে বাড়তি সহায়ক হিসেবে কাজ করে।

জলপাইয়ের তেলে রয়েছে ফ্যাটি অ্যাসিডও অ্যান্টি অক্সিজেন, যা ত্বক ও চুলের যত্নের কাজ করে। জলপাইয়ের তেল চুলের গোরা মজবুত করে।

জলপাইয়ের ভিটামিন -ই ত্বকে মসৃণ ভাব আনে। এ ছাড়া ত্বকের সৃর্যের অতিবেগুনী রশ্মির কারণে ত্বকের যে ক্ষতি হয় তা রোধ করে জলপাই।

জলপাই অ্যালার্জি প্রতিরোধ সহায়তা করে। এতে আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন -সি যা ত্বকের ইনফেকশন ও অন্যান্য ক্ষত সারাতে কার্যকরী ভুমিকা রাখে।

শুধু ফলে নয়, জলপাই পাতারও রয়েছে নানা রকম ভেষজ গুণ। যেমন জলপাই পাতা ছেঁচে কাটা স্থানে লাগালে ক্ষত দ্রুত শুকিয়ে যায়।