সকাল ৮:৩১, ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







কুষ্টিয়ায় ছেলের সঙ্গে ‘অভিমানে’, মায়ের মৃত্যু

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ট্রেনে কাটা এক নারীর দ্বিখণ্ড মরদেহ উদ্ধার করেছে রেলওয়ে পুলিশ। বুধবার দুপুরে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী রেলওয়ে সড়কের কুমারখালীর নন্দনালপুর ইউনিয়নের মনোহরপুর কালুমোড় রেললাইনের ওপর থেকে ওই মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত নারীর নাম নয়ন তাঁরা (৫০)। তিনি একই এলাকার স্কুল পাড়ার কৃষক মতিন শেখের স্ত্রী। পরে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসাপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, কয়েকদিন ধরে ছেলে লালন ও তার বউয়ের সাথে পারিবারিক কলহ চলছিল নয়ন তাঁরার। অভিমানে বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে নিজবাড়ি থেকে বের হয়। পরে দুপুরের দিকে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি রেলওয়ে সড়কের কুমারখালীর কালুমোড় এলাকায় চলন্ত ট্রেনের সামনে রেললাইনের উপর শুয়ে পড়ে। এতে তার শরীর দ্বিখণ্ড হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান তিনি। পরে মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে মর্গে পাঠায় পুলিশ।

প্রতিবেশীরা জানান, বাড়িতে পারিবারিক কলহ চলছি। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মায়ের বাড়ি যাওয়ার কথা বলে নয়ন তাঁরা বের হন। পরে তাঁর মৃত্যুর খবর শোনা গেছে।

নিহতের ভাই আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ছেলে আর বউমায়ের সাথে কয়েকদিন ঝগড়া চলছিল। এনিয়েই হয়তো অভিমানে ট্রেনেকেটে আত্মহত্যা করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছেলে লালন কথা বলতে রাজি হননি।

পোড়াদহ রেলওয়ে থানার (ওসি) মো. মনজেল আলী জানান, খবর পেয়ে এক নারীর দ্বিখণ্ড মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। পারিবারিক কলহের জেরে এঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।