সকাল ৬:২৫, ২৮শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ







পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ আজ

বছরের প্রথম চন্দ্রগ্রহণ আজ (সোমবার)। এটি পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ হবে। বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ৩৬ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে উপচ্ছায়ায় চাঁদের প্রবেশের মাধ্যমে গ্রহণটি শুরু হবে। বেলা ১টা ৪৮ মিনিটে শেষ হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসার তথ্যমতে, চাঁদ নিজের কক্ষপথে আবর্তনের যে পর্যায়ে পৃথিবীর খুব কাছে চলে আসে, তখন সুপার মুন দেখা দেয়। এ সময় পৃথিবী থেকে চাঁদকে ১৪ শতাংশ বড় দেখায়। এর উজ্জ্বলতাও বেড়ে যায় ৩০ শতাংশ পর্যন্ত।

আবহাওয়া অধিদফতর (বিএমডি) গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, বাংলাদেশে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ শুরু হবে সোমবার (১৬ মে) সকাল ১০টা ৪১ মিনিট ১৭ সেকেন্ডে। ১১টা ১২ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে কেন্দ্রীয় (মূল) চন্দ্রগ্রহণ ঘটবে।

পূর্ণগ্রহণ শেষ হবে ১১টা ৪৩ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে। প্রচ্ছায়ায় থেকে চাঁদের নির্গমন হবে ১২টা ৫০ মিনিট ৩৯ সেকেন্ডে। উপচ্ছায়া থেকে চাঁদের নির্গমন হবে ১টা ৪৮ মিনিটে। ৫ ঘণ্টা সাড়ে ১১ মিনিট স্থায়ী এ গ্রহণটির সর্বোচ্চ মাত্রা হবে ১.১৯৫৩।

বাংলাদেশ থেকে চন্দ্রগ্রহণটি দেখা যাবে না। তবে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে জানা গেছে, পশ্চিম ইউরোপ, আফ্রিকা, উত্তর-দক্ষিণ আমেরিকা, আন্টার্কাটিকা, আটলান্টিক মহাসাগর ও প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে এ চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে।

প্রসঙ্গত, চন্দ্রগ্রহণ তখনই হয় যখন সূর্য, পৃথিবী ও পূর্ণ চাঁদ একই সরলরেখায় চলে আসে। চাঁদ পৃথিবীর ছায়ায় চলে যায়, ধীরে ধীরে অন্ধকার হয়ে যায়, যতক্ষণ না পুরো চন্দ্র বৃত্তাকার রূপালি ধূসর থেকে একটি ভয়ঙ্কর আবছা কমলা বা লালে পরিণত হয়। তারপরে ঘটনাগুলো বিপরীত ক্রমে উন্মোচিত হয়, যতক্ষণ না চাঁদ পূর্ণ উজ্জ্বলতায় ফিরে আসে।