রাত ১:০২, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান: এখনো উত্তাল শাবি

রুহুল ইসলাম মিঠু, সিলেট জেলা প্রতিনিধি : শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির আলোচনার চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। আন্দোলনকারীরা তাদের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

মঙ্গলবার ( ১৮ জানুয়ারি ) বিকেলে আন্দোলনকারীদের সাথে আলোচনা করতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে উপস্থিত হয়ে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি তুলসি কুমার দাশ। এ সময় তার সাথে অন্যান্য নেতৃবৃন্দও ছিলেন।

তাদের উপস্থিতিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা বাড়িয়ে দেয়। তারা নানা ধরণের শ্লোগান দিতে দিতে শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দের আলোচনার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। তাদের তিনদফা দাবি এখন এক দফায় পরিণত হয়েছে। আর তা হচ্ছে উপাচার্যের পদত্যাগ।

এসময় আন্দোলনকারীরা তাদের দাবির সাথে একাত্মতা পোষণ ছাড়া যেকোন আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিরাজুনন্নেসা হলের প্রভোস্টের পদত্যাগ, হোস্টেলে স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনাসহ তিনদফা দাবিতে গত ১৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার রাতে আন্দোলনে নামে ঐ হলের কয়েকশ’ শিক্ষার্থী।
আন্দোলনের তৃতীয় দিন রোববার বিকেলে শিক্ষার্থীরা ভিসি ফরিদ উদ্দিন আহমদকে অবরোধ করে রাখলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাকে মুক্ত করে বাসায় ফিরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় পুলিশসহ আহত হন অন্তত অর্ধশত।
সেদিন রাতেই জরুরী সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা এবং সোমবার দুপুরের মধ্যে হলত্যাগের নির্দেশ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তবে তাদের সেই নির্দেশ তেমন একটা পাত্তা না দিয়ে আন্দোলনকারীরা একদফা দাবিতে সোমবার বিকেলে ভিসির বাসভবন অবরোধ করে রাখে। সেই অবরোধ আর বিক্ষোভ মিছিল এখনো চলছে।

এদিকে সোমবার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিনিধি ও ব্যক্তিগত সহকারী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ও আহতদের সাথে দেখা করার পর আজ মঙ্গল বিকেলে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী এবং উপাচার্য এবং শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলেছেন। তারা দ্রুত আলোচনার মাধ্যমে
এ সমস্যা সমাধানের ব্যাপারে সব পক্ষকে তাগিদ দিয়েছেন বলে জানান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।