রাত ৯:৪২, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







কন্যা দিবসে শিক্ষকপত্নীর ঘরে এলো তিন মেয়ে, নাম পদ্মা-মেঘনা-যমুনা

কন্যা দিবসে পাবনায় একসঙ্গে তিন সন্তানের মা হলেন এক শিক্ষকপত্নী। নাম দেওয়া হয়েছে পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা। পাবনার জেনারেল মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বেলা সোয়া ১১টার মধ্যে একে একে তাদের জন্ম হয়।

তিন সন্তান জন্ম দেওয়া সুমি খাতুন চাটমোহর উপজেলার ছোটগুয়াখরা গ্রামের আলতাব হোসেনের স্ত্রী। আলতাব হোসেন পাথাইলহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. জাহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মা এবং তার তিন কন্যা সন্তান সবাই সুস্থ আছে।

পাবনা সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, পাবনা সদর হাসপাতালে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় একটি, বেলা ১১টায় একটি এবং সোয়া ১১টায় অরও একটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন ওই গৃহবধূ।

গৃহবধূর পরিবারের লোকজন জানান, শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে অন্তঃসত্ত্বা সুমি খাতুনকে মঙ্গলবার ভোরে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে তিন কন্যা সন্তান প্রসব করেন তিনি।

আলতাব হোসেনের ভাই রাব্বি জানান, মা ও তিন কন্যা সন্তান ভালো আছেন এবং পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

গৃহবধূ সুমির জা জাকিয়া সুলতানা জানান, কন্যা তিন জনের নাম রাখা হয়েছে পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা। কন্যা সন্তানগুলো এবং তার মা যেন সুস্থ থাকে এ জন্য তিনি সবার দোয়া কামনা করেছেন।

তিন কন্যার বাবা আলতাব হোসেন বলেন, ‘আমাদের ঘরে ছয় বছর বয়সী আরেকটি ছেলে সন্তান আছে। কন্যা সন্তান পেয়ে আমরা খুশি। বিশেষ করে কন্যা দিবসে এক সঙ্গে তিন কন্যা পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার।’