রাত ৪:৪১, ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







জ্বালানি সংকট না থাকলে লোডশেডিং কেন: মির্জা ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, কিছুদিন আগে আওয়ামী লীগের নেতারা হাতিরঝিলে আতশবাজি ফুটিয়েছেন। সেখানে তারা বলেছেন, শতভাগ বিদ্যুতায়ন করা হয়েছে। কিন্তু এখন শহরে প্রতিদিন দুই তিন ঘণ্টা করে বিদ্যুৎ যায়। আর গ্রামে যখন বোরো মৌসুমে সবচেয়ে বেশি বিদ্যুতের প্রয়োজন সেসময় বিদ্যুৎ থাকে না। অথচ এই সরকারের বিদ্যুৎ উৎপাদনের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করেছে। এই টাকা লুট করে বিদেশে পাঠিয়েছে। পত্রিকায় এসেছে, ২০২১-২২ সালে বিদ্যুৎ খাতে লোকসান হয়েছে ২৮ হাজার কোটি টাকা।

শুক্রবার লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে সরকারের অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত কোম্পানিগুলো বিদ্যুৎ উৎপাদন করে তারা টাকা তুলে নিয়ে চলে গেছে। বিদ্যুতের জন্য তারা কুইক রেন্টাল পদ্ধতি চালু করেছে। এতে কোনো টেন্ডার না করেই হাজার হাজার কোটি টাকা তুলে নিয়ে গেছে। আর এজন্য তারা ইনডেমিনিটি আইন তৈরি করেছে, এ কারণে কোনো মামলাও হবে না। আওয়ামী লীগের কাজই হলো লুটপাট করা। কয়েকদিন আগে পদ্মা সেতুর জমকালো উদ্বোধন করেছে। কিন্তু ১০ হাজার কোটি টাকার এ সেতু তারা ৩০ হাজার কোটি টাকায় বানিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মেট্রোরেল নির্মাণের নামে তারা মাথার উপরে কী করছে, তাই এখন ঢাকার উত্তরায় যাওয়া যায় না। এখন উত্তরায় গেলে ২-৩ ঘণ্টা লাগে। চট্টগ্রামে তারা টানেল করছে। অন্যদিকে সাধারণ মানুষের খাওয়ার টাকা নেই।