ভোর ৫:৩১, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







নওগাঁয় বিজিবির মাদকদ্রব্য ধ্বংস ও কষ্টি পাথরের মূর্তি হস্তান্তর

বিকাশ চন্দ্র প্রামানিক, নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁ-১৪ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উদ্যোগে বিভিন্ন বিওপিতে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা মাদকদ্রব্য ধ্বংসকরণ করা হযেছে।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার (২৯নভেম্বর) দুপুরে জেলার পতœীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) কর্তৃক গত ০১ অক্টোবর ২০১৯ হতে ৩১ অক্টোবর ২০২২ তারিখ পর্যন্ত নওগাঁ ও জয়পুরহাট জেলার আটককৃত বিভিন্ন প্রকার মদ-৬,৩৩১ বোতল, ফেন্সিডিল-২২,৭১৭ বোতল, নেশাজাতীয় সিরাপ-১০,৮৬০, গাঁজা-১৪৪.৭৭০ কেজি, নিষিদ্ধ ট্যাবলেট-৪,৮৭৭ পিস, নেশাজাতীয় ইনজেকশন -১১,৮৪৮ পিস এবং ইয়াবা ট্যাবলেট-৩৭৩ পিস ধ্বংস করা হয়, যার সিজার মূল্য ২,৫৮,১০,৭৯৫/- (দুই কোটি আটান্ন লক্ষ দশ হাজার সাতশত পঁচাত্তর) টাকা এবং নওগাঁ ব্যাটালিয়ন (১৬ বিজিবি) কর্তৃক গত ০১ অক্টোবর ২০১৯ হতে ৩১ অক্টোবর ২০২২ তারিখ পর্যন্ত নওগাঁ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার আটককৃত বিভিন্ন প্রকার বিভিন্ন প্রকার ভারতীয় মদ -১৪৩ বোতল ও ২৭ প্যাকেট মদ, ফেন্সিডিল-১,৪৮৮ বোতল, গাঁজা-৩৪.১৯০ কেজি, ইয়াবা ট্যাবলেট-৫৩৬, হেরোইন-১১৬ গ্রাম ও হেরোইন-৭৭ পুরিয়া, নেশাজাতীয় ট্যাবলেট-৮৬৯ পিস, গুড়া তামাক-১৬৫.৫ কেজি, পাতার বিড়ি-৪১,১৭২ প্যাকেট এবং টেন্ডু বিড়ির পাতা-২১৫ কেজি ধ্বংস করা হয় যার সিজার মূল্য ৩১,৯৭,৩৬৫/- (একত্রিশ লক্ষ সাতানব্বই হাজার তিনশত পঁয়ষট্টি) টাকা। উভয় ব্যাটালিয়নের আটককৃত মাদকদ্রব্যের সর্বমোট মূল্য ২,৯০,০৮,১৬০/- (দুই কোটি নব্বই লক্ষ আট হাজার একশত ষাট) টাকা।

এছাড়াও নওগাঁ জেলার বিভিন্ন স্থান হতে উদ্ধারকৃত কষ্টি পাথরের ০৫টি মূর্তি এবং নওগাঁ ব্যাটালিয়ন (১৬ বিজিবি) কর্তৃক নওগাঁ জেলার বিভিন্ন স্থান হতে উদ্ধারকৃত ০৬টি কষ্টি পাথরের এবং ০৩ টি সিমেন্টের মূর্তি নওগাঁ জেলার বদলগাছি উপজেলার পাহাড়পুর প্রতœতাত্ত্বিক জাদুঘরে সংরক্ষণের নিমিত্তে পাহাড়পুর জাদুঘরের কাস্টোডিয়ানের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন পতœীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ হামিদ উদ্দিন, পিএসি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রংপুর রিজিয়ন কমান্ডার (উত্তর-পশ্চিম রিজিয়ন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ বি এম নওরোজ এহসান, বিএসপি, পিএসসি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মোঃ আনোয়ার লতিফ, বিপিএম (বার), পিএসসি। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ ব্যাটালিয়ন (১৬ বিজিবি) অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, পিএসসি, জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান পিএএ, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশেদুল হক, সিভিল সার্জন ডাঃ আবু হেনা মোহাম্মদ রায়হানুজ্জামান সরকার, সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান, নওগাঁ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ। এছাড়াও সামরিক ও অসামরিক প্রশাসনের উধ্বর্তন কর্মকর্তাবৃন্দ, স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, স্কুল কলেজের শিক্ষক/শিক্ষিকা-ছাত্র/ছাত্রী এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

এসময় প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, মাদকদ্রব্য দেশের যুব সমাজকে ধ্বংস করার এক ধরনের অস্ত্র বিশেষ। মাদকের ভয়াবহ মরণ ছোবল থেকে দেশের যুব সমাজকে রক্ষা করা আমাদের সকলের পবিত্র দায়িত্ব। তাই দেশের যুব সমাজকে মাদকের মরণ ছোবল হতে রক্ষা করার লক্ষ্যে মাদক বিরোধী অভিযান সফল করে তোলার জন্য আরো জোরালোভাবে সকলের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। মাদকের ছোবলে আক্রান্ত হয়ে ধ্বংস হচ্ছে পরিবার, যুব সমাজ তথা দেশ। তাই মাদকের ভয়াবহতা হতে আমাদের মুক্তি পেতে হবে। আজকের এই মাদকদ্রব্য ধ্বংস করণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মাদকদ্রব্য সেবনে নিরুৎসাহিত হয়ে একদিন বাংলাদেশ মাদক মুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে বলে দেশবাসী প্রত্যাশা করে।