রাত ১২:২৫, ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







মুক্তিযুদ্ধের পুঙ্খানুপুঙ্খ ইতিহাস সঠিকভাবে তুলে ধরতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর আহ্বান

মহান মুক্তিযুদ্ধের পুঙ্খানুপুঙ্খ ইতিহাস জাতির সামনে সঠিকভাবে তুলে ধরতে গণমাধ্যম ও গবেষকদের আরো বেশি সক্রিয় হতে আহ্বান জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

শুক্রবার ২৯ জুলাই রাজধানীর মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংবাদিকতায় 'বজলুর রহমান স্মৃতি পদক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান ।

মন্ত্রী বলেন, পাঠ্যসূচিতে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস যথেষ্ট নয়। এটি আরো সমৃদ্ধ করা দরকার।

তিনি বলেন, শুধু বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ইতিহাস সংরক্ষণ করলেই হবে না। এর সাথে পাকিস্তান হানাদারবাহিনী, রাজাকার, আলবদর, আলশামসরা কীভাবে নিরস্ত্র বাঙালিদের হত্যা করেছে, লুটপাট করেছে, অগ্নিসংযোগ করেছে, নির্যাতন করেছে সেই ইতিহাসগুলো তুলে ধরতে হবে। পাঠ্যসূচিতে এগুলো থাকা উচিত। না হলে প্রকৃত ইতিহাস আগামী প্রজন্ম জানতে পারবে না।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংবাদিকতায় প্রিন্ট মিডিয়া ক্যাটেগরিতে সমকালের সিনিয়র রিপোর্টার আবু সালেহ রনি এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণায় যৌথভাবে শাহাদুজ্জামান ও ড. খায়রুল ইসলামকে বজলুর রহমান স্মৃতিপদক প্রদান করা হয়।

গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রথম আলোতে প্রকাশিত হয়েছিল। শাহাদুজ্জামান দেশের বাইরে থাকায় তার পক্ষে খায়রুল ইসলাম পুরস্কার গ্রহণ করেন। এছাড়া ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ক্যাটেগরিতে একাত্তর টিভির সিনিয়র রিপোর্টার পার্থ সঞ্জয়কে বজলুর রহমান স্মৃতি পদক  প্রদান করা হয়েছে। পদক বিজয়ীদের প্রতি ক্যাটেগরিতে ক্রেস্ট ও এক লাখ টাকার চেক প্রদান করা হয়।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও জুরি বোর্ডের সভাপতি আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ডা. সারওয়ার আলী, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সদস্য সচিব সারা যাকের এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও জুরি বোর্ডের সদস্য রোবায়েত ফেরদৌস উপস্থিত ছিলেন।