সকাল ৬:৪১, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







ট্রেন দুর্ঘটনায় প্রাণে বেঁচে যাওয়া ইমনের শ্বাসরুদ্ধকর বর্ণনা (ভিডিও)

চট্টগ্রামে রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনা ধ্বংস করে দিয়েছে নিহতদের পরিবারের স্বপ্ন। এতগুলো তরুণ মেধাবী শিক্ষার্থীকে হারিয়ে শোকের ছায়া সবদিকে।

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কায় ১১ জন মৃত্যুর ঘটনার পর রেল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীদের পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের দাবি, ব্যারিকেড ও গেটম্যানের লাল পতাকা উপেক্ষা করে চালক মাইক্রোবাস লাইনে তুলে দেওয়ায় ভয়াবহ এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। আর প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি দুর্ঘটনার সময় ক্রসিংয়ে ছিলেন না গেটম্যান। কেউ ব্যারিকেডও দেয়নি।

তবে সব উপেক্ষা করে সেদিনের প্রকৃত ঘটনা তুলে ধরলেন মিরসরাইয়ের খৈয়াছড়া এলাকায় ট্রেন ও মাইক্রোবাস দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া ইমন।

পিকনিকে যাওয়া শিক্ষার্থীদের একজন ইমন। ইমন দাবি করেন রেল লাইনে কোনো ব্যারিকেড ছিল না, ছিল না কোনো বাঁশ। গেটকিপারও ছিলেন না দাবি করে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে গেটকিপারের বিচারও চাইলেন তিনি। ওই মাইক্রোবাসে মোট ১৮ জন ছিলেন বলে জানান ইমন।

ইমন বলেন, ওই সময় কোনো লোকজনই ছিল না। দায়িত্বে অবহেলার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে, আমার বন্ধুরা চলে গেছে, স্যারও চলে গেছে। আমি বিচার চাই, গেটম্যানের বিচার চাই।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ইমন বলেন, মাইক্রোবাসে আমরা সবাই গল্প-আড্ডায় ফিরছিলাম। মাইক্রোবাস যখন একেবারে লাইনের ওপর উঠে যায়, ঠিক তখন খুব জোরে ট্রেনের হুইসেল শুনতে পাই। মুহূর্তেই ট্রেন আমাদের মাইক্রোবাসে ধাক্কা দেয়। এরপর অনেক দূর পর্যন্ত ঠেলে নিয়ে যায়।