দুপুর ১২:০৭, ২৮শে মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ







‘বাবার প্রতি আপনারা কোনো দাবি রাখবেন না’

‘আমার বাবার প্রতি আপনারা কোনো দাবি রাখবেন না’ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এভাবেই বলেন কিংবদন্তি অভিনেতা ফারুকের ছেলে রওশন হোসেন পাঠান শরৎ।

তিনি বলেন, ‘আমার বাবা চলে গেলেন। আপনারা আমার বাবার প্রতি কোনো দাবি রাখবেন না। তার জন্য দোয়া রাখবেন। তার যেন বেহেশত নসিব হয়।’

শরৎ আরও বলেন, ‘সারাজীবন বাবা মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন। মৃত্যুর পর আপনারা সেই ভালোবাসা দিয়ে যাবেন। তার আত্মার জন্য দোয়া রাখবেন।’

মঙ্গলবার (১৬ মে) বেলা পৌনে ১২টার দিকে ফারুকের মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আনা হয়। সেখানে ‘মিয়া ভাই’ খ্যাত এই নায়ককে শ্রদ্ধা জানান বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

বেলা ১২টা ৩৫ মিনিটে শহীদ মিনার থেকে এফডিসির উদ্দেশ্যে রওনা হয় চিত্রনায়ক ফারুকের মরদেহ বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স। যাওয়ার আগে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বেলা একটার দিকে সেটি এফডিসিতে পৌঁছায় মরদেহ বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স। এফডিসিতে অনুষ্ঠিত হবে ফারুকের দ্বিতীয় জানাজা।

এরপরে অভিনেতার মরদেহ নেওয়া হবে গুলশান আজাদ মসজিদে। সেখানে বাদ আসর আরেক দফা নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর সন্ধ্যা ৭টায় গ্রামের বাড়ি গাজীপুরের কালিগঞ্জে নেওয়া হবে।

সেখানে নামাজে জানাজা শেষে সোমটিওরী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন পারিবারিক কবরস্থানে বাবা আজগার হোসেন পাঠানের পাশে দাফন করা হবে ফারুককে।