রাত ৩:১৮, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:







ইতিহাস গড়লেন এমবাপ্পে

বিশ্বকাপের পরে এবার ক্লাবের খেলায় ফ্রান্সের তারকা স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপ্পে হ্যাটট্রিকসহ করলেন ৫ গোল। তাতে পরপর দুই মাসে দুটি হ্যাটট্রিক পূরণ হলো তরুণ এই ফুটবলারের। আর এক ম্যাচে পাঁচ গোল করে গড়েন নতুন ইতিহাস। এর আগে কাতার বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলায় আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেন এমবাপ্পে।

গতকাল সোমবার (২৩ জানুয়ারি) ফরাসি লিগের পেইস দি ক্যাসেলের বিপক্ষে পিএসজির হয়ে ৫ গোল করেন এমবাপ্পে। আর এটিই পিএসজির ইতিহাসে প্রথম কোনো খেলোয়াড় এক ম্যাচে ৫ গোল করলেন। এদিন নেইমার একটি গোল করেন। আর ব্রাজিল তারকাকে দেখতে হয়েছে একটি হলুদ কার্ড। ম্যাচটিতে পিএসজি জয় পেয়েছে ৭-০ গোলে।

খেলার ২৬ মিনিটে ফাউল করার কারণে নেইমার দেখেন হলুদ কার্ড। বিশ্বকাপের পরে পিএসজিতে ফিরে একবার লাল কার্ডও দেখেছেন তিনি। তাতে ক্যাসেলের বিপক্ষে হলুদ কার্ড দেখে আবারও শঙ্কা তৈরি করেন নেইমার। সেই শঙ্কা কাটিয়ে ২৯ মিনিটে প্রথম গোল করেন এমবাপ্পে। নুনো মেন্ডেজের ক্রস থেকে পাওয়া বল ডান পায়ের শটে জালে জড়ান ফরাসি তারকা।

৩৩ মিনিটে দলের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। পরপর দুই গোল হজম করে এলোমেলো হয়ে পড়ে ক্যাসেল। আর নড়বড়ে রক্ষণ সহজে ভেদ করে ৩৪ ও ৪০তম মিনিটে আরও দুই গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এমবাপ্পে। এতেই থেমে থাকেননি তিনি। দ্বিতীয়ার্ধে ৫৬ ও ৭৯ মিনিটে আরও দুটি গোল করে পাঁচ গোল করে ফেলেন ২৪ বছর বয়সী এই তারকা।

নেইমার ও এমবাপ্পে ছাড়াও ম্যাচটিতে ৬৪ মিনিটে একটি গোল করেন কার্লোস সোলের। বিপরীতে একটি গোলও করতে পারেনি পেইস দি ক্যাসেল। তাতে ৭-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পিএসজি।

খেলা শেষে এমবাপ্পে বলেন, ‘আমরা এখানে এসেছি দলের জন্য ভালো কিছু করতে। আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে সেটি করার চেষ্টা করি। আর ম্যাচটিতে আমরা সেই কাজটি করতে পেরেছি। এজন্য আমি খুশি।’

এদিন পিএসজির হয়ে নেইমার, এমবাপ্পে খেললেও ছুটি দেয়া হয়েছিল আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসিকে। ফলে ম্যাচটিতে বিশ্বকাপজয়ী তারকাকে দেখা যায়নি।